Categories
গভ নিউজ

তথ্য প্রযুক্তি কতটা এগিয়েছে?

জানেন কি তথ্য প্রযুক্তি কতটা এগিয়ে যাচ্ছে? আমরা ২০২১ সালে এসে তথ্য প্রযুক্তির বাইরে কিছুই ভাবতে শিখি নি আমাদের সকল ভাবনার শুরুতেই রয়েছে তথ্য প্রযুক্তি। তথ্য প্রযুক্তির বাইরে চিন্তা ধারা করা বর্তমান সময়ে অনেকটা বোকামো হয়ে থাকে বটে। সবকিছু চিন্তা শুরুতে তথ্য প্রযুক্তি।

তাহলে আমাদের দেশ কতটা এগিয়ে গেছে তথ্য-প্রযুক্তির দিক থেকে? অবশ্যই আপনার উত্তর হবে সর্বোপরি সকল দেশের নিম্ন স্থানে তথ্য প্রযুক্তির দিক থেকে আমাদের বাংলাদেশ। হ্যা আসলেই আমাদের বাংলাদেশে সর্বোপরি প্রত্যেকটা দেশের থেকে অনেকটা পিছিয়ে আছে বিশেষ করে তথ্য-প্রযুক্তির দিক থেকে। বর্তমান সময়ে এমন কোন কাজ নেই যেটা তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে করা হচ্ছে না অন্যান্য রাষ্ট্র কিংবা দেশগুলোতে যেদিক থেকে আমরা সর্বমোট পিছিয়ে রয়েছি।

চীন- কোরিয়ান এরা তথ্য-প্রযুক্তির মাধ্যমে অনেক বেশি এগিয়ে গিয়েছেন এরা সব কিছু যেন তথ্য-প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়েই করছে। তাদের ভাবনা চিন্তা জন্য তথ্য-প্রযুক্তির বাইরে মোটেও নয় শুরুতেই যেন তাদের ভাবনার তথ্য প্রযুক্তি

প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তারা কৃষি কাজ থেকে শুরু করে গাছ কাটা, আকাশে ওড়া সবকিছুই করছে। প্রযুক্তির সক্রিয় তারা এগিয়ে যাচ্ছে অনেক দূর। প্রযুক্তিতে তারা মাইলফলক করেছে অনেক বেশি যার জন্য তারা অনেক বেশি এগিয়ে গিয়েছে। তাদের চিন্তাধারার শুরুতেই রয়েছে প্রযুক্তি বিষয়ক চিন্তা। প্রযুক্তির বাইরে বর্তমান সবাই চিন্তা করা মোটেও সুবিধাজনক নয় ‌‌। আমি মনে করি বর্তমান সময়ে সে তথ্য প্রযুক্তির বাইরে চিন্তা ধারা করা মানুষ খুবই কম রয়েছে।

প্রযুক্তি নিয়ে এগিয়ে যেতে সর্বোপরি আমাকে আপনাকে সজাগ থাকতে হবে। অন্যান্য দেশগুলোর মতো তথ্য প্রযুক্তির দিক থেকে আমাদের দেশ এতটা এগিয়ে যেতে পারেনি তবে মোটামুটি কিছু কিছু জিনিস প্রযুক্তির দিক থেকে এগিয়ে আছে যেটা আমাদের জন্য সহজলভ্য এবং ভালো দিক বটে। তথ্য প্রযুক্তি কে নিয়ে আমাদের ভাবনা অনেক দূর।

খেয়াল করলে দেখা যায় বাহিরের রাষ্ট্রে গাছ কাটার জন্য ব্যবহৃত হচ্ছে তথ্য প্রযুক্তি। তারা তাদের সময় এবং কষ্ট ক বাঁচাতে প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে খুব অল্প সময়ের মধ্যে গাছ কেটে ফেলেছে কৃষিকাজ খুব অল্প সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে ফেলছে প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে। তারমানে আমরা বুঝতে পারলাম প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে চাইলেই অনেক কিছু করা যাবে।

প্রযুক্তিকে আমরা কেন কাজে লাগাতে পারছি না! আমাদেরও চেষ্টা করতে হবে প্রযুক্তিকে কাজে লাগে। প্রযুক্তির মাধ্যমে বর্তমান সময়ে সবকিছুই করা সম্ভব। তথ্য প্রযুক্তি গুলো আমাদের শরীরের সাথে মিশে আছে এখন। সবকিছুতেই আমরা ইন্টারনেট এবং প্রযুক্তির মেশিন ব্যবহার করে থাকি। প্রযুক্তির মেশিন যেন আমাদেরকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে খুবই দ্রুত রকেট গতিতে।

আমাদের এই রকেটের গতি কে আরো বুস্ট করে আগাতে হবে তাহলেই খুব দ্রুত প্রযুক্তির বাসায় পৌঁছানো যাবে। প্রযুক্তির বাসা থেকে আমরা এখনো অনেক দূরে রয়েছে তাই আমাদের আরও দ্রুত আগাতে হবে। খেল বলে দেখা যায় অন্য দেশগুলোতে প্রযুক্তির বাইরে মোটেও চিন্তাভাবনা করে না সে তুলনায় আমাদের চিন্তাধারা খুবই দুর্বল।

বর্তমান সময় দেখা যায় স্মার্টফোনের বাইরে কোন কিছুই নয় আমাদের সময় যেন কাটছে স্মার্টফোন এবং প্রযুক্তির মাধ্যমেই। শহর থেকে শুরু করে গ্রাম গঞ্জের সব জায়গাতেই ব্যবহৃত হচ্ছে স্মার্টফোন এবং ইন্টারনেট। তবে হ্যাঁ আমাদের দেশের ইন্টারনেট সেবা অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক পিছিয়ে এবং অনেক দুর্বল যেটা নিয়ে আমরা পূর্বে আলোচনা করেছি। সরকারের এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উচিত আমাদের ইন্টারনেট সেবা কেয়ারও বুস্ট করা যাতে করে আমাদের দেশ আরো বেশি তথ্য প্রযুক্তির দিক থেকে এগিয়ে যেতে পারে।

তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার ইন্টারনেট থেকেই শুরু হয় এখন এখানে যদি আমাদের ইন্টারনেট সেবা অথবা ইন্টারনেট সার্ভিস দুর্বল থাকে সে ক্ষেত্রে আমাদের তথ্য প্রযুক্তির বিষয়টি মাথায় আসবে কিভাবে। তথ্যপ্রযুক্তি এবং ইন্টারনেট সেবা দুটো থাকতে হবে আমাদের এসপন এবং দ্রুতগতির এতে করে আমাদের দেশ এবং দেশের জাতির তথ্যপ্রযুক্তিকে অনেক দুর এগোতে পারবে।

বর্তমান ইন্টারনেট স্পিড বুস্ট করে আরো বেশি স্পিডে আমাদেরকে শামিল হতে হবে। ইন্টারনেট স্পিড কেবলমাত্র আমাদেরকে আঘাতে সহায়তা করবে। প্রত্যেকটি বিষয়ের শুরুতেই আমাদের ইন্টারনেট ব্যবহারের শুরুটা হয়ে থাকে তাই ইন্টারনেট ব্যবহারের বাইরে বিকল্প কিছুই নেই। ইন্টারনেট ব্যবহার থেকে শুরু করে সবকিছু আমাদের দুর্দান্ত স্পিড যুক্ত হতে হবে।

আমাদের এই ওয়েবসাইটে প্রযুক্তিবিষয়ক অনেক আর্টিকেল রয়েছে যেগুলো পড়ে আপনি জ্ঞান অর্জন করতে পারেন কিংবা বিভিন্ন বিষয়ের উপর জানতে পারেন তাই সেগুলো অবশ্যই মিস না করে পড়ে আসুন। এছাড়া প্রযুক্তি সহায়ক সব বিষয় জানতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.